প্যারিসে গ্যাস বিস্ফোরণে নিহত চার, আহত ৪৭

ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে গ্যাস বিস্ফোরণে ফায়ার সার্ভিসের দুই কর্মীসহ চারজন নিহত হয়েছেন। আজ শনিবার স্থানীয় সময় সকাল ৯টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এতে আহত ৪৭ জনের মধ্যে ১০ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, এই দুর্ঘটনার সঙ্গে দেশটি চলমান ‘ইয়েলো ভেস্ট’ মুভমেন্টের কোনো সম্পর্ক নেই বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া গেছে। ইতিমধ্যে বহুতল ওই ভবনের বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। উদ্ধার অভিযানে হেলিকপ্টারও ব্যবহার করা হয়েছে। বিস্ফোরণের সঙ্গে দাউ দাউ আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

ওই ভবনের বাসিন্দা কিলিয়ান বলেন, ঘটনার সময় তিনি ঘুমিয়ে ছিলেন। প্রচণ্ড শব্দে তাঁর ঘুম ভাঙে। পরে দুর্ঘটনার বিষয়টি টের পান। এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়, এই বিস্ফোরণে একটি থিয়েটারও ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

আগুন নিয়ন্ত্রণের আনার চেষ্টা করছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। ছবি: এএফপি

আগুন নিয়ন্ত্রণের আনার চেষ্টা করছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। ছবি: এএফপিসিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়, বহুতল ভবনটির নিচতলায় একটি বেকারিতে এই বিস্ফোরণে ঘটনা ঘটে। বিস্ফোরণের আগেই ওই বেকারির গ্যাস লাইনে লিকেজের বিষয়টি টের পাওয়া যায়। পরে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা লিকেজ শনাক্ত করার চেষ্টা করছিলেন। ঠিক সেই সময় প্রচণ্ড শব্দে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

ফরাসি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ক্রিস্টোফার কাস্টনার এক টুইট বার্তায় বলেছেন, এই গ্যাস বিস্ফোরণের ঘটনায় ফায়ার সার্ভিসের দুই কর্মী ও দুজন সাধারণ নাগরিক নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত ১০ জনের মধ্যেও ফায়ার সার্ভিসের কয়েকজন সদস্য আছেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর টুইট বার্তায় আহতের সংখ্যা ৩৭ বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, ঘটনার সময় ইয়েলো ভেস্ট মুভমেন্টকে কেন্দ্র করে প্যারিসে ৮০ হাজার পুলিশ সদস্য মোতায়েন ছিল। জ্বালানি তেলের ওপর করারোপকে কেন্দ্র করে গত ১৭ নভেম্বর থেকে দেশটির বিভিন্ন শহরে এই আন্দোলন চলে আসছে। যা নিয়ে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর বেশ কয়েকটি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছিল।

সূত্রঃ প্রথমআলো